ডেবিট কার্ড আর ক্রেডিট কার্ড কি এর মধ্যে পার্থক্য কি?

আপনি কি এরকম কিছু ভাবছেন যে ডেবিট কার্ড কি আর ক্রেডিট কার্ড কি আর এর মধ্যে পার্থক্য কি। তো আপনার মনে যদি এরকম কোনো পশ্ন আসছে ডেবিট আর ক্রেডিট কার্ড কে নিয়ে তো আজকে আপনার মনের সব প্রশ্নের উত্তর পাবেন ডেবিট আর ক্রেডিট কার্ড কে নিয়ে।


ডেবিট কার্ড আর ক্রেডিট কার্ড কি এর মধ্যে পার্থক্য কি?
ডেবিট কার্ড আর ক্রেডিট কার্ড কি এর মধ্যে পার্থক্য কি?
আপনি এটাও জানেন যে আমরা ডেবিট কার্ড আর ক্রেডিট কার্ড এই দুই ধরণের কার্ড দিয়ে অনলাইনে শপিং করতে পারি এটিএম থেকে টাকাও তুলতে পারি। কিন্তু এখানে ক্রেডিট কার্ড দিয়ে অনলাইনে শপিং করার আর এটিএম দিয়ে টাকা তোলার অনেক সুবিধা আর অসবিধাও আছে। এই সব আজকে জানবো আমরা এই ক্রেডিট কার্ড আর ডেবিট কার্ড কি এই পোস্টে।

ডেবিট এবং ক্রেডিট কার্ডের মধ্যে কি মিল রয়েছে ?

  • ডেবিট কার্ড আর ক্রেডিট কার্ড দেখতে একই রকম হয়। 
  • ডেবিট কার্ড আর ক্রেডিট কার্ড সব জায়গায় ব্যবহার করা যায়। 
  • ক্রেডিট কার্ড আর ডেবিট ব্যবহার করার পদ্ধতি প্রায় একি। 
  • ক্রেডিট কার্ড আর ডেবিট কার্ড দুটি কার্ডেই লেনদেন করার জন্য ব্যবহার করা হয়। 
এটাও পড়ুন:
আসা করি আপনি কিছুটা বুঝতে পারছেন যে ক্রেডিট কার্ড আর ডেবিট কার্ড কি। এখন একটি একটি করে জেনে নেই যে ক্রেডিট কার্ড কি আর ডেবিট কার্ড কি। 

ডেবিট কার্ড কি

সুবিধার ক্ষেত্রে, ডেবিট কার্ডগুলি হুবহু ক্রেডিট কার্ডের মতো তবে অর্থের উত্সের কারণে তারা আলাদা। ডেবিট কার্ডের সাহায্যে আপনি আপনার সেভিং বা কারেন্ট অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা লেনদেন করেন। আপনি যখন ডেবিট কার্ড দিয়ে অনলাইনে কোনো শপিং করেন অথবা কোনো এটিএম থেকে টাকা তোলেন। ওই সময় আপনার নিজের ব্যাংক একাউন্টে জমা টাকা থেকে কেটে আপনাকে শপিং করতে দেয় এটিএম থেকে টাকা তুলতে দেয়। এ সময় যদি আপনার ব্যাংক একাউন্টে টাকা না থাকে তাহলে আপনি আপনার ডেবিট কার্ড দিয়ে লেনদেন করতে পারবেন না। 

সহজ ভাষায় ডেবিট কার্ড মানে আপনার নিজের টাকা ব্যাংকে জমা রেখে আপনি আপনার নিজের টাকাই ডেবিট কার্ড দিয়ে ব্যবহার করছেন এটিএমে আর অনলাইনে। ডেবিট কার্ড আপনার ব্যাঙ্ক একাউন্ট এর সাথে যোক্ত থাকে। 

ক্রেডিট কার্ড কি

ক্রেডিট কার্ড গুলি দেখতে হবহু ডেবিট কার্ড এর মতন আর এর ব্যবহার একই জায়গায় হয় যেখানে আপনি ডেবিট কার্ড ব্যবহার করবেন আপনি সেই জায়গায় ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করবেন। কিন্তু খবই কম এমন অনলাইন ওয়েবসাইট আছে যেখানে আপনি শুধু ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করতে পারবেন। ডেবিট কার্ড ব্যবহার করতে পারবেন না। এখনকার সময়ে বেশির ভাগ ক্রেডিট কার্ড ক্রেডিট কার্ড ইন্টারন্যাশনাল এ ব্যবহার করতে পারবেন। 

আপনি যেমন উপরে দেখছেন যে ডেবিট কার্ড দিয়ে আপনি আপনার নিজের ব্যাঙ্ক একাউন্টটে ডিপোজিট করা টাকা ব্যবহার করেন। এই দিক দিয়ে ক্রেডিট কার্ড একদম আলাদা ক্রেডিট কার্ড দিয়ে যদি আপনি অনলাইনে শপিং করেন আর এটিএম মেশিন দিয়ে টাকা তোলেন তো সেখানে আপনি যে টাকা গুলি ব্যবহার করবেন সেই টাকা গুলি ওই সময় আপনাকে দিতে হয় না। সেই টাকা গুলি ওই সময় দেয় ব্যাঙ্ক অথাৎ আপনি যে কোম্পানির কাজ থেকে ক্রেডিট কার্ড নিবেন সেই কোম্পানি টাকা গুলি দিবে ওই সময়। 

ক্রেডিট কার্ড দিয়ে আপনার ব্যাঙ্ক একাউন্ট এ যদি টাকা না থাকে তাও আপনি ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে অনলাইনে কেনাকাটা আর এটিএম দিয়ে টাকা তুলতে পারবেন। 

আপনি দেখছেন যে ডেবিট কার্ড দিয়ে আপনি আপনার নিজের টাকা ব্যাঙ্ক এ থাকলে ব্যবহার করতে পারবেন না থাকলে ব্যবহার করতে পারবেন না আর এর জন্য আপনাকে কোনো ইন্টারেস্ট দিতে হবে না।

ক্রেডিট কার্ড দিয়ে আপনার ব্যাঙ্ক আকাউন্টে টাকা না থাকলেও আপনি ব্যবহার করতে পারবেন। এই জন্য ক্রেডিট কার্ড এ পতি মাসে একটি করে বিল্স তৈরি হয় আর ওই বিল্স এ তারিখ দেওয়া থাকে যে এই তারিখ এর মধ্যে আপনাকে সব টাকা দিতে হবে যতো টাকা আপনি লেনদেন করেছেন ক্রেডিট কার্ড দিয়ে। আর আপনি যদি সেই তারিখ মতন আপনার ক্রেডিট কার্ড বিল্স দিতে না পারেন তো সেই সময় ব্যাঙ্ক আপনার কাজ থেকে সুদ আর বিভিন্ন ধরণের চার্জ নিবে।

ক্রেডিট কার্ড ব্যাংক একাউন্টের সাথে যোক্ত থাকে না। 

আসা করি আপনি এখন বুজে গেছেন যে ক্রেডিট কার্ড কি আর ডেবিট কার্ড কি। 

ডেবিট কার্ড এবং ক্রেডিট কার্ডের মধ্যে পার্থক্য কি

তো উপরে আমরা দেখেছিলাম ডেবিট কার্ড কি আর ক্রেডিট কার্ড কি। তো এখন সহজ ভাষায় দেখে নেই যে ক্রেডিট কার্ড এবং ডেবিট কার্ডের মধ্যে পার্থক্য কি। 
  • একটি ডেবিট কার্ডের সাহায্যে আপনি কেবল আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা লেনদেন করেন, তবে ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে আপনি সেই পরিমাণ টাকা ব্যাংক থেকে ধার করেন।
  • ডেবিট কার্ড দিয়ে বেশি টাকা লেনদেন করার জন্য আপনাকে কোনো সুদ দিতে হয় না। ক্রেডিট কার্ড দিয়ে বেশি টাকা লেনদেন করার জন্য আপনাকে চার্জ দিতে হয়। 
  • ডেবিট কার্ড দিয়ে আপনি আপনার ব্যাংকে যতোটাকা রাখবেন সব তুলতে পারবেন। কিন্তু ক্রেডিট কার্ডের মধ্যে ব্যাংক আপনাকে যা লিমিট দিবে আপনি ওটাই ব্যবহার করতে পারবেন। 
  • ক্রেডিট কার্ডগুলি সারা বিশ্ব জুড়ে সমানভাবে ব্যবহৃত হয়, তাই ভ্রমণের সময় এগুলি বেশি কার্যকর হয়, তবে ডেবিট কার্ডগুলি কেবল আপনার দেশে গ্রহণযোগ্য।
  • ডেবিট কার্ড প্রদান করার চার্জ খুব কম হয়। ক্রেডিট কার্ডের তুলনায়। 
  • ডেবিট কার্ড আর ক্রেডিট কার্ড একই কোম্পনি তৈরি করে ভিসা , মাস্টার , আরও অনেক কোম্পনি আছে যারা ক্রেডিট কার্ড আর ডেবিট কার্ড তৈরি করে। 

ক্রেডিট এবং ডেবিট কার্ড ব্যবহার করার সময় সাবধানতা অবলম্বন করা উচিত

আপনি যে কোনো জায়গায় অনলাইনে অথবা অফলাইনে ক্রেডিট কার্ড হোক অথবা ডেবিট কার্ড ব্যবহার করার আগে যাচাই করে নিন আপনি যে জায়গায় ক্রেডিট আর ডেবিট কার্ড নাম্বার দিড়ছেন ওই জাগাটা কি সঠিক। আর কোনো দিন ফোন কল আর মেসেজ এর মাধ্যমে আপনার ডেবিট কার্ড নাম্বার আর ক্রেডিট কার্ড নাম্বার শেয়ার করবেন না। 

শেষ কথা:-
হ্যাঁ, বন্ধুরা, আপনার আজ আমাদের পোস্টটি কেমন লেগেছে, আজ আমরা আপনাকে বলেছিলাম যে ডেবিট কার্ড আর ক্রেডিট কার্ড কি এর মধ্যে পার্থক্য কি? আশা করি আপনি এটি অবশ্যই বুঝতে এবং পছন্দ করেছেন, কারণ আজ আমরা আপনাকে সহজ ভাষায় সঠিক এবং আপডেট তথ্য বলেছি, যা আপনার জন্য দরকারী এবং গুরুত্বপূর্ণ।


পোস্টটি যদি আপনার ভাল লাগে তবে অবশ্যই আপনার বন্ধুদের সাথে ডেবিট কার্ড আর ক্রেডিট কার্ড কি এর মধ্যে পার্থক্য কি? শেয়ার করুন, ধন্যবাদ!