ওয়াইফাই কলিং কি? ওয়াইফাই দিয়ে ফ্রি কল কিভাবে করবেন ?

আপনি কি ওয়াইফাই কলিংয়ের কথা শুনেছেন, তবে ঠিক কিভাবে ওয়াইফাই কলিং কাজ করে তা নিশ্চিত নন? বা, আরও গুরুত্বপূর্ণ, কিভাবে ওয়াইফাই দিয়ে ফ্রি কল চালু করবেন তা জানেন না? আপনার জন্য ওয়াইফাই কলিং কি? ওয়াইফাই কলিং কিভাবে কাজ করে তা জানতে আপনি এই পোস্ট টি সম্পন্ন দেখুন।


ওয়াইফাই কলিং কি





ওয়াইফাই কলিং কি





ওয়াইফাই কলিং আপনাকে একটি ওয়্যারলেস ইন্টারনেট সংযোগ ব্যবহার করে ফোন কল করার সুযোগ দেয়। ওয়াইফাই কলিং একটি হাই কোয়ালিটি ভয়েস কল করার সুবিধা দেয় যখন আপনার ফোন এ নেটওয়াক খুব কম থাকে আর আপনি কোনো কল করলে ভয়েস টিক পরিষ্কার সোনা যাই না তখন আপনি ওয়াইফাই কলিং ব্যবহার করলে আপনার ভয়েস কল এর কথা একদম পরিষ্কার সোনা যাবে। আর ওয়াইফাই কলিং দিয়ে কল করলে কোনো টাকা লাগে না আপনি সারা দেশে ফ্রি তে হাই কোয়ালিটি ভয়েস কল করতে পারবেন। 


ওয়াইফাই কলিং কিভাবে কাজ করে 





ওয়াইফাই কলিং এইচডি ভয়েস প্রযুক্তির উপর নির্ভর করে কাজ করে , যা পঞ্চম প্রজন্মের ওয়্যারলেস নেটওয়ার্ক গুলিতে কল সরবরাহ করে (সাধারণত ৪জি , ৫জি ওয়াইফাই কলিং এলটিই হিসাবে পরিচিত) আমি জানি ৪জি এলটিই  এর মতো পুরানো প্রযুক্তির চেয়ে আরও ভাল মানের এবং দ্রুত গতি সরবরাহ করে ৫জি। এটি আরও পরিষ্কার, আরও প্রাকৃতিক-সাউন্ডিং কলগুলির ফলাফল।




ওয়াইফাই কলিং একটি নুতন পদ্ধতি এইচডি ভয়েস কল করার জন্য। স্কাইপ, হোয়াটসঅ্যাপ এবং ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারের মতো পরিষেবাগুলি বছরের পর বছর ধরে ব্যবহারকারীদের মধ্যে বিদ্যুত সংযোগের জন্য ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে আসছে। লোকেদের যা জানা থাকতে পারে তা হ'ল অনেক ক্যারিয়ার এবং স্মার্টফোনগুলি ওয়াই-ফাই কলিং সমর্থন করে এবং এটি কার্যকর করতে আপনার কোনও বিশেষ সফ্টওয়্যার বা অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করার দরকার নেই।

ওয়াইফাই কলিং কিভাবে চালু করবেন এন্ড্রইড মোবাইলে 






ওয়াইফাই কলিং চালু করার জন্য, আপনাকে প্রথমে আপনার ওয়াইফাই কলিং সাপোর্ট একটি স্মার্টফোনে লাগবে। 

১. ওয়াইফাই কলিং চালু করতে সবার প্রথমে আপনি আপনার ফোনের সেটিং খুলুন। 

২. সেটিং খুলে সার্চ করুন ওয়াইফাই কলিং (WiFi Calling) তখন আপনার সামনে যদি ওয়াইফাই কলিং এর অপশনস আসে তাহলে ওই খানে ওয়াইফাই কলিং (WiFi Calling) আর উপর ক্লিক করুন 


ওয়াইফাই কলিং


মনে রাখবেন -  ওয়াইফাই কলিং (WiFi Calling) সার্চ করার পরে যদি আপনার সামনে ওয়াইফাই কলিং এর অপশনস না আসে তাহলে মনে করবেন আপনার ফোনে ওয়াইফাই কলিং এর সুবিধা নেই।  আর এই ওয়াইফাই কলিং এর সুবিধা আপনি কোনো এপপ্স ডাউনলোড করে চালু করতে পারবেন না। ওয়াইফাই কলিং করার জন্য আপনার ফোনে এ ওয়াইফাই কলিং এর হার্ডওয়্যার থাকা প্রয়োজন। 

৩. সার্চ করার পরে ওয়াইফাই কলিং অপসন আসার ওইখানে ওয়াইফাই কলিং লেখার উপর ক্লিক করুন। 


ওয়াইফাই কলিং


৪. আপনি দেখতে পাবেন আপনার ফোনে এ ওয়াইফাই কলিং পরিষেবা অফ আছে ওই খানে ওয়াইফাই কলিং এর উপর ক্লিক করে ওয়াইফাই কলিং পরিষেবা অন করে দিন। 


ওয়াইফাই কলিং


এখন আপনার ওয়াইফাই কলিং পরিষেবা চালু হয়ে গেছে। 

 ওয়াইফাই দিয়ে ফ্রি কল কিভাবে করবেন





ওয়াইফাই কলিং দিয়ে ফ্রি কল করার জন্য আপনাকে এখন কিছু এপপ্স ব্যবহার করতে হবে কারণ এখনো ওয়াইফাই কলিং দিয়ে কল করার জন্য কোনো এপপ্স এখনো আসে নাই তাই আপনাকে ওয়াইফাই কলিং দিয়ে কল করার জন্য। 

এই অ্যাপ্লিকেশনগুলি ভয়েস ওভার ইন্টারনেট প্রোটোকল (VOIP) ব্যবহার করে যা ওয়াইফাই কলিং দ্বারা ব্যবহৃত সিস্টেমের থেকে পৃথক যেমন - হোয়াটসঅ্যাপ, ফেসবুক , স্ক্যাপ। আপনার স্মার্টফোনে ওয়াইফাই কলিং ফাংশন সেটআপ করতে হবে, সুতরাং আপনাকে কোনও পরিষেবাতে সংযুক্ত হওয়ার প্রয়োজন নেই বা এটি ব্যবহারের জন্য কোনও অ্যাপ্লিকেশন চালিত করতে হবে না।




তাই বন্ধুরা, আশা করি আপনি ওয়াইফাই কলিং কি? ওয়াইফাই দিয়ে ফ্রি কল কিভাবে করবেন ? পছন্দ করেছেন, যদি আপনার এই পোস্টটি ভাল লাগে তবে পোস্টটি যথাসম্ভব শেয়ার করুন, যদি আপনার কোন প্রশ্ন থাকে তবে এ জন্য কমেন্ট করে জানাবেন।